ladies dress

যারতার থেকে কাপড় কিনে ঠকছেন নাতো Ladies Dress Buying Tips

Ladies Dress, কাপড় আমাদের মৌলিক চাহিদার মধ্যে অন্যতম একটি জিনিস। যা আমরা প্রতিনিয়ত পরিধান করে থাকি। তাই আমাদের মাঝে মধ্যে জামাকাপড় কিনার প্রয়োজন হয়ে থাকে। সবাই আমরা কমবেশি জামাকাপড় কিনে থাকি, কিন্তু এমনও লোক আছে যার এটা একধরনের শখে পরিণত হয়ে যায়। কেনাকাটা করতে তারা খুব পছন্দ করে থাকেন। 

আমরা শখের বসে অনেক জামাকাপড় কিনে থাকি, কারণ নতুন নতুন জামা পরতে কারই না ভালো লাগে। কিন্তু এই কেনাকাটা করতে গিয়ে আমরা অনেক সময় ভালো ও খারাপ জিনিসের সম্মুখীন হয়ে থাকি। সব কিছুর মধ্যে যেমন ভালো খারাপ রয়েছে, তেমনি কাপড়ের ক্ষেত্রেও রয়েছে। যারতার থেকে কাপড় কিনে আমরা এই সমস্যায় পরে থাকি।


তাই আমরা যদি বুঝতে পারি কোন কাপড়টি ভালো অথবা জানতে পারি ভালো কাপড় চেনার মাধ্যম গুলো কি কি. সেক্ষেত্রে আমরা এমন বাজে জিনিসের অথবা বাজে অবস্থার সম্মুখীন হব না।

কাপড়ের মধ্যে অনেক ধরন থাকে, যেমনঃ কটন, লিনেন, উল, সিল্ক, পলিষ্টার আরও অনেক ধরনের কাপড় রয়েছে। কিন্তু আমরা কিছু উপায়ে জানতে পারি আসলে কাপড়টি ভালো হবে নাকি খারাপ। 

  • যখন কাপড় কিনবেন তখন জিএসএম এর দিখে খেয়াল রাখবেন। জিএসএম বলতে বুঝান হয় আসলে প্রতি স্কয়ারে কাপড়ের ওজন কতটুকু। সুতরাং জিএসএম যত বেশি কাপড়ের ওজন তত বেশি। এর উপরে কাপড়ের মান নির্ভর করে না। 
  • কাপড়ের মান নির্ভর করে কি ধরনের ম্যাটারিয়াল ব্যাবহার করা হয় কাপড়ে। যেমন ন্যাচারাল ফাইবার ব্যবহার করা, এটির দাম একটু বেশি কিন্তু পরে আরাম পাবেন। 
  • হাতের মুঠোয় পোশাকের কিছু অংশ নিয়ে বেশ কিছুক্ষণ চেপে ধরে রাখতে রাখবেন। যদি কাপড়টি কুঁচকে যায় তাহলে বুঝতে হবে যে এই পোশাকটিতে বিশেষ ধরনের কেমিক্যাল ব্যবহার করা হয়েছে সংরক্ষিত করার জন্য। তাই কয়েক ধোয়ার পরে এই পোশাকটি আর পরার যোগ্য থাকবে না।
  • পোশাকের সেলাই দেয়া অংশটি, যেখানে জোড়া দেয়া আছে সেখানে ধরে জোরে টান দিয়ে দেখবেন। যদি সেলাইয়ের সুতাগুলো সহজেই আলগা হয়ে যায় এবং মাঝখানে ফাঁক দেখা যায় তাহলে বুঝতে হবে যে পোশাকের কোয়ালিটি খুব একটা বেশি ভাল না।
  • কাপড়ে জিপার থাকলে জিপার দেখেও আপনি পোশাকের কোয়ালিটি বুঝতে পারবেন। যেমন মেটালের যেসব জিপার রয়েছে এবং তার দুই পাশের স্ট্র‍্যাপ দিয়ে ঢাকা সেগুলো ভালো কোয়ালিটির পোশাক। খোলা প্লাস্টিকের জিপার সাধারণত ভালো কোয়ালিটির পোশাকে থাকে না।




  • জামা কাপড়ের নিচে হেম সেলাই দেয়া থাকে, এই হেম সেলাই গুলোর একটি স্ট্যান্ডার্ড মাপ রয়েছে। যেমন প্যান্ট এবং স্কার্টের ক্ষেত্রে স্ট্যান্ডার্ড মাপ ৪ সে.মি প্রস্থ। ব্লাউজ এবং শার্টের ক্ষেত্রে সেটি ২ সে.মি। আর যদি কোন পোশাকের নিচে হেম সেলাই দেয়া না থাকে অথবা সাধারণ সেলাই দেয়া থাকে। তাহলে বুঝতে হবে কাপড় ভালোনা।
  • স্ট্রেচ টাইপের কাপড় হাতে নিয়ে তান দিয়ে দেখবেন। যদি ভালো মানের কাপড় হয়ে থাকে তাহলে আগের অবস্থাতে পৌছাতে সক্ষম হবে আর ভালো না হলে সক্ষম হবে না।
  • যে কোন কাপড় সেলাই এর আকৃতি, সুতার রং অবশ্যই একই রকম থাকবে। সেলাই এর আকৃতি এবং সুতার রঙ ভিন্ন হলে বুঝতে হবে যে, কাপড় ভালো না। এই ধরনের কাপড় না কেনাই ভালো।
  • কাপড় থেকে যে রঙ উঠে উঠে আসে, সেটা হতে পারে আপনার ত্বকের ক্যান্সারের কারণও! তাই সাবধান।

ব্র্যান্ডেড কাপড়ের বা ভালো মানের কাপড়ের পরিচয় তার ট্যাগ। ট্যাগ লাগানোর জায়গা দেখেই বুঝে নিতে পারেন এটা আসল কি না।

এভাবে আপনি কাপড় ভালো নাকি খারাপ সেটি বুঝতে পারবেন। সুতরাং যার থেকে যখনই কাপড় কিনবেন উপরের বিষয়গুলো মনে রাখবেন, যেনো খারাপ জিনিস না কিনতে হয় আর খারাপ অবস্থার সম্মুখীন না হতে হয়। তাহলেই আর যারতার থেকে কাপড় কিনে ঠকতে হবে না।

এছাড়া আপনি যদি আরো পোশাক সম্পর্কে সাজেসন পেতে চান অথবা যদি আমাদের সাথে সরাসরি কথা বলতে চান তাহলে আমাদের #inbox এ #Knock দিন । চাইলে পেজের দেয়া নাম্বারে কলও করতে পারেন।


One Reply to “যারতার থেকে কাপড় কিনে ঠকছেন নাতো Ladies Dress Buying Tips”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *