কাতান শাড়ি কখন পড়বেন? বৌভাত অনুষ্ঠানে কাতান শাড়ি

/
/
/
1169 Views

কাতান শাড়ি তৈরি করা হয় মূলত রেশমি ও সিল্ক সুতা দিয়ে। ২৪৫০ থেকে ২০০০ খ্রীস্টাব্দ এর দিকে সিল্ক ও রেশম চাষ শুরু হয়। আর তখন থেকে রেশম কাপড়র প্রচলন হয়।

আর কাতান শাড়ির প্রচলন হয় ১৯৪৭ সালের দিকে।তখন দেশ বিভাগের পর ভারতের বেনারস থেকে মুসলমান তাঁতিরা তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে চলে আসে।বাংলাদেশের তাঁতিরা তাদের নিজস্ব সৃজনশীলতা, নান্দনিক ডিজাইনের মাধ্যমে উন্নত রুচির পরিচয় দিচ্ছে বহু বছর ধরে। শাড়ির ইতিহাস আর ঐতিহ্যের সঙ্গে মিশে আছে কাতান।সময় বদলের সঙ্গে সঙ্গে কাতানের নকশা বুনন আর রঙে এসেছে নানা পরিবর্তন।


মেয়েরা বেড়াতে গেলেই কাতান শাড়ি পড়ার কথা ভাবে অনুষ্ঠানে গেলেও প্রথম পছন্দের তালিকায় কাতান শাড়িকে রাখে।কারন এ শাড়ি সহজে সামলানো যায়। এর ওজন হাল্কা তাছাড়া এই শাড়ি দেখতে খুব সুন্দর। শাড়িতে থাকে নানা কারুকাজ। উজ্জ্বল রঙের যেকোনো শাড়ি যেকোনো বয়সের নারীকে মানিয়ে যায়।এক কালারের কাতান হলেও আঁচল আর পাড়ে বিভিন্ন নকশা করা থাকে। কাতান শাড়ির অন্যতম আকর্ষণ হলো এর উজ্জ্বলতা! যেটি খুব গর্জিয়াস লুক দেয়! নেট কাতান শাড়ি গুলো প্রায় সব নারীদের ব্যবহার করতে দেখা যায়।


বাঙালি নারীরা এখনো উৎসবে, পার্বণে, বিয়েবাড়ির আয়োজনে সিল্ক, কাতান বা গরদের শাড়ি পরার দিকে আগ্রহ থাকে বেশি। বিশেষ দিন ছাড়া নারীরা কাতান শাড়ি খুব বেশি পড়ে না।


আমরা বিভিন্ন উনুষ্ঠানে কাতান শাড়ি পড়ে থাকি-



গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে হতে পারে কাতান



গায়ে হলুদ বাঙালি জাতির একটি উৎসবের ।গায়ে হলুদে সবচেয়ে গুরত্ব্বপূর্ণ বিষয়টি হলো শাড়ি। শাড়ি যদি সুন্দর না হয় তাহলে প্রফুল্ল হয়ে উঠে না। তাই গাঁয়ে হলুদের জন্য বেছে নেয় সবাই কাতান শাড়ি। কাতান শাড়িতে আর সঙ্গে গাঁদা ফুলের মালায় জড়ানো সাজে কনের সুন্দর্য ফুটে উঠে।কনের জন্য হলুদ, সবুজ, নীল বা হালকা গোলাপি; যে কোনো এক রঙের কাতান শাড়ি এনে দিতে পারে এক অনন্য রূপ।


বিয়ের শাড়িতে কাতান



বিয়ের শাড়ি হিসেবে কাতান না হলে যেন চলেই না।আামাদের দেশে কাতান শাড়ি মূলত বিয়ের শাড়ি হিসাবেই সর্বাধিক পরিচিত ও জনপ্রিয়।কাতান শাড়ির সবথেকে বড় সুবিধা হচ্ছে, বিয়ের যে কোন ধরনের অনুষ্ঠানের পড়ার মত শাড়ি আপনি খুঁজে পাবেন। কাতানের অনেক ধরনের প্রকারভেদ রয়েছে।

অপেরা কাতান, সাউথ কাতান, ইন্ডিয়ান কাতান, সিল্ক কাতান, নেট কাতান, বেনারসী কাতান, স্বর্ণ কাতান ইত্যাদি ছাড়াও অন্তত আরো ২০ রকমের কাতান শাড়ি বাজার ঘুড়লেই পাওয়া যাবে।

সবগুলোরই আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্য এবং নিজস্ব ডিজাইন রয়েছে। সস্তা থেকে দামি, সবরকম কাতানই পাবেন নিজের বাজেট অনুযায়ী। বিয়ের অনুষ্ঠান ছাড়াও অন্য সব ধরনের উৎসব কিংবা পার্বণে পড়ার জন্য কাতান শাড়ি খুবই আদর্শ। তবে সস্তা কাতান শাড়ি বেশ নিম্নমানের হতে পারে। এ জন্য কেনার সময় ভালোমত দেখে নেয়া উচিত।


বৌভাত অনুষ্ঠানে কাতান শাড়ি


বিয়ের পরের দিনে বরের বাড়িতে হয় বৌভাত। বউভাতে শাড়ি সাজে এমন স্নিগ্ধতা থাকা চাই, যেন নবপরিণীতা বধূর চেহারায় ফুটে ওঠে প্রসন্ন ও মনোমুগ্ধকর আবেদন। তাই সেদিন কনেকে বেগুনি,গোল্ডেন, সফট পিংক, পিচ এমনকি সাদা রঙের কাতান শাড়িতে বেশ আকর্ষণীয় লাগে। আর কনের শাড়ি মানেইতো কাতান শারি।কাতান শাড়ি ছাড়া বউর সুন্দর্য ফুটেই না।



পার্টিতে কাতান শাড়ি



বড় বড় পার্টিতে কাতান শাড়ি ছাড়া যেন জমেই না। আর কাতান শাড়ি ছাড়া এদেশের বড় বড় ধর্মীয় উৎসব কিংবা বড় বড় উনুষ্ঠান মেয়েদের সুন্দর্যই ফুটে উঠে না।কাতান শাড়ি সেই আদিম কাল থেকে এই পর্যন্ত চলেই আসছে।আধুনিকতার সাথে সাথে কাতান শাড়ির চাহিদা বেড়েই চলেছে।



পূজার উৎসবে কাতান শাড়ি


শুরু হয়ে গেছে পূজা । তাই পোশাক কেনাকাটার বিষয়টা তো থাকেই। সে জন্য দোকান, শপিংমলগুলোও এখন মুখরিত ক্রেতাদের আনাগোনায়। আর এই পূজাতে কাতান শাড়িতে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। পুজাতে  ভিবিন্ন রঙের কাতান শাড়িতে দেখা যায় মেয়েদের।দেখতে বেশ সুন্দর লাগে।


জন্মদিনের উৎসবে কাতান



নারীদের আধুনিক পোষাকের সাথে সমান তালে পাল্লা দিয়ে এখনো মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে রয়েছে কাতান শাড়ি। বিভিন্ন অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে জন্মদিনে এখন কাতান শাড়িতে সেজে উঠে নারীরা। এবংকি  প্রিয়জনের জন্মদিনে কাতান শাড়ি হতে পারে দারুণ উপহার।

অনলাইনে শাড়ি কেনা কি আপনার জন্য ঠিক হবে?


বড়দিনের উৎসব কাতান শাড়ি



খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব হচ্ছে বড়দিনের উৎসব। অন্য সব দিবসের মতো বড়দিনের কোনো ড্রেস কোড নেই তাদের। এসময় অনেক মেয়েরেই কাতান শাড়ি পড়ে থাকে।সব বয়সি নারীরা তাদের পছন্দের তালিকায় শাড়িকেই প্রাধান্য দেন। দেশীয় তাঁতের শাড়ি, জামদানি, সিল্ক, কাতান বড়দিনে বেশি উপযোগী নারিদের জন্য।

ঠোঁটে উজ্জ্বল রঙের লিপ লাইনার ব্যবহার করবেন, তার সঙ্গে একই রঙের লিপস্টিক ব্যবহার করুন। চাইলে লিপগ্লসও ব্যবহার করতে পারেন। রাতের পার্টি থাকলে একটু গাঢ় আর দীর্ঘস্থায়ী লিপিস্টিক লাগিয়ে নেবেন এতে করে অনেকক্ষণ নিশ্চিন্তে থাকা যাবে। এতে দেখতে খুবেই আকর্ষণীয় লাগবে।

পাইকারি দামে কাতান শাড়ি কালেকশন

1 Comments

    Leave a Comment

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    This div height required for enabling the sticky sidebar
    Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views : Ad Clicks :Ad Views :